বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১:৩৭ পূর্বাহ্ন
বিশেষ ঘোষণা :
ডিসেম্বর বিজয়ের-গৌরবের
সংবাদ শিরোনাম :

তেরখাদা সদরের ২টি বাজারে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

  • আপডেট : রবিবার, ৩১ ডিসেম্বর, ২০২৩, ১১.২৫ পিএম
তেরখাদা সদরের ২টি বাজারে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

নিজস্ব প্রতিবেদক:তেরখাদা উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন মেইন রাস্তার পাশে চিত্রা নদীর পাড় ঘেষা ডাকবাংলো হতে নাচুনিয়া ব্রিজ পর্যন্ত দীর্ঘদিন ধরে বেদখলে থাকা সরকারি জমি দখলমুক্ত করতে বিশেষ অভিযানের মাধ্যমে অবৈধ ভাবে দখল করে গড়ে ওঠা ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও বসতি উচ্ছেদ করে উপজেলা প্রশাসন।

এরই ধারাবাহিকতায় রবিবার উপজেলা সদরের কাটেংগা ও জয়সেনা বাজারে এ অভিযান পরিচালিত হয়। এ সময় ২টি বাজারের ফুটপাত সহ আশপাশের দোকানঘর অবৈধ স্থাপনা ভেঙে সরকারি জমি দখলমুক্ত করা হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মারুফা বেগম নেলী ও সহকারি কমিশনার (ভূমি) সুমাইয়া সুলতানা এ্যানি এ অভিযানের নেতৃত্ব দেন।

এ অভিযানে বাজারে অবৈধ ভাবে গড়ে ওঠা দোকানঘর ও ফুটপাত দখলমুক্ত করা হয় এবং অবৈধ দখলদারদের ভ্রাম্যমান আদালতে জরিমানাও করা হয়। এলাকার সচেতন মহল নদী পাড় ও বাজারের সরকারি জমি উদ্ধারে প্রশাসনের উদ্যোগের প্রশংসা করে বলেছেন, প্রভাবশালীরা দিনের পর দিন নদীর পাড়, বাজার সহ অন্যান্য সরকারি জমি দখল করে গেছেন। অতিতে লোক দেখানো অভিযান পরিচালিত হলেও এবার তেরখাদাবাসী দেখেছে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ।

এভাবে প্রভাবশালীদের উচ্ছেদ করা যাবে- এটা আমরাও ভাবিনি। এর মাধ্যমে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বলেও মন্তব্য করেছেন তারা। উদ্ধার করা জায়গা যেন আবারও বেদখল না হয় সেই ব্যবস্থা নেয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

যুগের পর যুগ ধরে সরকারি জমি দখল করে গড়ে তোলা বানিজ্যিক প্রতিষ্ঠান গুঁড়িয়ে দিয়ে সর্বস্তরের মানুষের প্রশংসা কুড়িয়েছেন উপজেলা প্রশাসন।এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মারুফা বেগম নেলী বলেন, উর্ধতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশনায় সরকারি খাস জমি উদ্ধারে আমরা তৎপর রয়েছি। উপজেলার বেহাত ও বেদখল হওয়া জায়গা উদ্ধার করা হচ্ছে।

এই কয়েকদিনে ভূমিদস্যুদের কাছ থেকে সরকারের কয়েক কোটি টাকার জমি উদ্ধার করেছি। উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) সুমাইয়া সুলতানা এ্যানি বলেন, আমরা কেবল আমাদের ওপর অর্পিত দায়িত্ব পালনের চেষ্টা করেছি।

আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে একটি বার্তা দেয়া হয়েছে দখলকারদের। তা হলো যত ক্ষমতাধরই হোন না কেন সরকারি জায়গা দখল করা যাবে না।

 

উপকুলীয় অঞ্চলের নির্বাচনী দুর্গম এলাকায় বাংলাদেশ কোস্টগার্ডের টহল

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর

18 responses to “তেরখাদা সদরের ২টি বাজারে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ”

  1. Thank you so much!

  2. boostaro says:

    Thanks for thr great article!

  3. Thank you so much!

  4. sightcare says:

    It is very comforting to see that others are suffering from the same problem as you, wow!

  5. Thank you so much!

  6. viagra hap says:

    Thanks for thr great article!

  7. It is very comforting to see that others are suffering from the same problem as you, wow!

  8. cialispazari says:

    Thank you so much!

  9. vigrande says:

    It is very comforting to see that others are suffering from the same problem as you, wow!

  10. It is very comforting to see that others are suffering from the same problem as you, wow!

  11. Thank you so much!

  12. It is very comforting to see that others are suffering from the same problem as you, wow!

  13. Thank you so much!

  14. It is very comforting to see that others are suffering from the same problem as you, wow!

  15. It is very comforting to see that others are suffering from the same problem as you, wow!

  16. It is very comforting to see that others are suffering from the same problem as you, wow!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

https://natunshokal.com/#
নিবন্ধনের জন্য আবেদনকৃত অনলাইন নিউজ পোর্টাল। অনুমতি ছাড়া এই পোর্টালের কোন সংবাদ কপি করে অন্য কোথাও প্রকাশ করা থেকে বিরত থাকুন।