শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:১২ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
কেন্দ্রীয় আ’লীগ নেতৃবৃন্দের সাথে সরফুদ্দিন বিশ্বাস বাচ্চুর সৌজন্য স্বাক্ষাৎ তেরখাদায় এমপি পত্নী শারমিন সালামের জন্মদিনে হাফেজদের মাঝে খাবার বিতরণ মহৎ কাজের জন্য সন্মাননা পেলো বোদা রিপোর্টাস ক্লাব ও বোদা উপজেলা স্বেচ্ছাসেবী টিম রূপসায় স্বল্পমূল্যো চাল বিতরণ উপ‌জেলা পর্যা‌য়ে এসডিজি ফোরামের ইন্টারেক্টিভ মিটিং অনু‌ষ্ঠিত স্বাস্থ্যকর শহর প্রকল্পের প্রচারণা বিষয়ক সভা হিরোর মত থেকে বীরের মত গেলেন যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা আবুবকর মোল্লা রূপসায় র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে দুই ভুয়া চিকিৎসককে এক বছরের সাজা বোদায় পঞ্চগড় জেলা প্রশাসকের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত ঝিনাইদহে আইন-শৃঙ্খলা বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

চাঁদার টাকায় মাটি ভরাট করে জনপ্রিয়তা কিনলেন ইউএনও

  • আপডেট : শনিবার, ৩১ জুলাই, ২০২১, ৭.৪০ পিএম
চাঁদার টাকায় মাটি ভরাট করে জনপ্রিয়তা কিনলেন ইউএনও

চিলমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি : কুড়িগ্রামের চিলমারীতে সরকারী অর্থের অপব্যয় ঠেকাতে নির্বাহী কর্মকর্তা ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের চাঁদার টাকায় মাটি ভরাটের কাজ করা হয়েছে। শনিবার সকালে উপজেলার পাত্রখাতা স্লুইচ গেটের উপর জলাবদ্ধতা নিরসনে এ মাটি ভরাটের কাজ
করা হয়।

এদিকে নামেই স্বেচ্ছাশ্রম বলা হলেও চাঁদার টাকায় পারিশ্রমিকের ভিত্তিতে ৩ জন শ্রমিককে দিয়ে মাটি ভরাটের কাজ করায় স্থানীয়দের মাঝে মিশ্রপ্রতিক্রিয়া দেখা গেছে। সরেজমিন দেখা গেছে, রবিউল ইসলাম, আবু তালেব ও আব্দুল হক নামে ৩ জন শ্রমিক স্লুইচ গেটের উপর মাটি ছড়ানোর কাজ করছেন। তাদের কাজ দেখভাল করছেন স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. আব্দুল আজিজ।

এ সময় এ ইউপি সদস্য বলেন, মাটি ভরাটের কাজটি পানি উন্নয়ন বোর্ডের। তাদের রাস্তার কাজও চলমান রয়েছে। তবে ইউএনও স্যারের নির্দেশে আমাদের মাটি ভরাটের কাজ করতে হচ্ছে। শ্রমিক রবিউল ইসলাম বলেন, আমরা ৩জন পারিশ্রমিক ভিত্তিতে মাটি ভরাটের কাজ করছি।

তিনি আরও জানান, এ মাটি ভরাট কাজে ইউএনও স্যার সকালে এসে উপজেলা চেয়ারম্যানের নামে ১ হাজার সহ মোট ২ হাজার টাকা স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. আব্দুল আজিজের হাতে দিয়ে মাটি ভরাট কাজের উদ্বোধন করেন। এ সময় তিনি ওই ইউপি সদস্যসহ আরও ২ ইউপি সদস্যকে জনপ্রতি ১ হাজার করে টাকা দেয়ার নির্দেশ দেন।

উদ্বোধনকালে ইউএনও মো. মাহবুবুর রহমান বলেন, আল্লাহর কসম এ ধরণের কাজ যদি আমরা সরকারী টাকায় করতাম তাহলে কম করে হলেও ৩০ হাজার টাকা লাগতো। সে জায়গায় আমরা ৫ হাজার টাকায় ভালোবাসা দিয়ে কাজটি করছি। এ হচ্ছে উন্নত দেশের উন্নত সমাজের ভালো বৈশিষ্ট্য। এদিকে উদ্বোধনকালে ইউএনওর বক্তব্যকে ঘিরে স্থানীয়দের মাঝে মিশ্রপ্রতিক্রিয়া দেখা গেছে।

স্থানীয়রা বলেন, মজুরির ভিত্তিতে চাঁদার টাকায় মাটি ভরাট কাজ কিভাবে স্বেচ্ছাশ্রম হয়। আর এতেও স্থানীয় লোকজনের কোন সম্পৃক্ততা নেই। স্থানীয় বাসিন্দা মো. নুর ইসলাম ও দুলাল মিয়া বলেন, আমরা এলাকাবাসী জানিনা যে এখানে স্বেচ্ছাশ্রমে কাজ হচ্ছে।

তাছাড়া এ ধরণের কাজ ঝুঁকিপূর্ণ বরাদ্দ থেকে করা হয় বলেও আমরা জেনেছি। এ ব্যাপারে উপজেলা নিবার্হী অফিসার (ইউএনও) মো. মাহবুবুর রহমান বলেন, সরকারী বরাদ্দ না থাকায় এ ধরণের ছোটখাটো কাজ স্বেচ্ছাশ্রমে করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

নিচে আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ThemesBazar-Jowfhowo
# নতুন সকাল ডটকম, রূপসা-খুলনা থেকে প্রকাশিত একটি অনলাইন পত্রিকা। # এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি রাইট বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Translate »