শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:১৫ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
কেন্দ্রীয় আ’লীগ নেতৃবৃন্দের সাথে সরফুদ্দিন বিশ্বাস বাচ্চুর সৌজন্য স্বাক্ষাৎ তেরখাদায় এমপি পত্নী শারমিন সালামের জন্মদিনে হাফেজদের মাঝে খাবার বিতরণ মহৎ কাজের জন্য সন্মাননা পেলো বোদা রিপোর্টাস ক্লাব ও বোদা উপজেলা স্বেচ্ছাসেবী টিম রূপসায় স্বল্পমূল্যো চাল বিতরণ উপ‌জেলা পর্যা‌য়ে এসডিজি ফোরামের ইন্টারেক্টিভ মিটিং অনু‌ষ্ঠিত স্বাস্থ্যকর শহর প্রকল্পের প্রচারণা বিষয়ক সভা হিরোর মত থেকে বীরের মত গেলেন যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা আবুবকর মোল্লা রূপসায় র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে দুই ভুয়া চিকিৎসককে এক বছরের সাজা বোদায় পঞ্চগড় জেলা প্রশাসকের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত ঝিনাইদহে আইন-শৃঙ্খলা বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

তেরখাদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সিজার বন্ধ, সেবা বঞ্চিত গর্ভবতিরা

  • আপডেট : শুক্রবার, ৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৮.৩৮ পিএম
তেরখাদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সিজার বন্ধ, সেবা বঞ্চিত গর্ভবতিরা

রাসেল আহমেদ : তেরখাদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দীর্ঘকাল ধরে অ্যানেস্থেশিয়ার চিকিৎসা না থাকায় বন্ধ রয়েছে সিজার কার্যক্রম। ফলে উপজেলার ৬টি ইউনিয়নের দুর-দুরান্ত থেকে আসা গ্রামের নিম্ন আয়ের পরিবারে গর্ভবতী মায়েদের ব্যাপক ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে।

পাশাপাশি সিজার কার্যক্রমে অব্যবহৃত যন্ত্রপাতি দীর্ঘকাল ধরে পড়ে থাকার কারনে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। জানা যায়, তেরখাদা উপজেলায় ২ লাখধিক লোকের স্বাস্থ্য সেবার জন্য একটিমাত্র নির্ভরযোগ্য সরকারি হাসপাতাল হলো তেরখাদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স।

দীর্ঘকাল ধরে অ্যানেস্থেশিয়ার চিকিৎসক হাসপাতালে নিয়োগ দেওয়া হয়নি। যে কারনে এখানে গর্ভবর্তী মায়েদের অপারেশসনের (সিজার) জন্য একটি আধুনিক অপারেশন থিয়েটর থাকলেও অ্যানেস্থেশিয়ার চিকিৎসক না থাকায় অপরেশনও বন্ধ রয়েছে।

যার দরুন এই উপজেলার ইউনিয়ন গুলো থেকে আগত গর্ভবতী মায়েদের মোটা অংকের টাকা খরচ করে স্থানীয় প্রাইভেট ক্লিনিকে বাধ্য হয়ে ভর্তি হতে হচ্ছে। এতে করে সাধারন খেটে খাওয়া পরিবারের গর্ভবতী মহিলারা চরম বিপাকে পড়েছে। এসব প্রাইভেট ক্লিনিকে রয়েছে দালাল চক্র। তারা লোভনীয় অফার দিয়ে গর্ভবতী রুগিদের ভর্তি করাচ্ছেন ক্লিনিকে।

কোন কোন ক্ষেত্রে ঘটছে প্রসূতি নারীর মৃত্যুও। স্থানীয় বাসিন্দা মাসুদ রানা বলেন, গর্ভবতী মায়েদের অপারেশনের জন্য তেরখাদা হাসপাতালে অপারেশন থিয়েটার থাকলেও প্রায় দীর্ঘকাল ধরে অ্যানেস্থেশিয়ার চিকিৎসক না থাকায় হাসপাতালে সিজার কার্যক্রম বন্ধ আছে। কখনও কখনও গভীর রাতে চিকিৎসক না পেয়ে উপজেলার অনেক বাসা বাড়িতে সন্তান প্রসব করার ঘটনাও ঘটছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোঃ আসাদুজ্জামান সিজার বা অপারেশন বন্ধ থাকার কথা স্বীকার করে বলেন, অ্যানেস্থেশিয়ার চিকিৎসা দেওয়ার জন্য উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে কয়েকবার জানানো হয়েছে। তারা খুব শিঘ্রই এ পদে চিকিৎসক নিয়োগ দেওয়া হবে বলে আশ্বাস দিয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

নিচে আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ThemesBazar-Jowfhowo
# নতুন সকাল ডটকম, রূপসা-খুলনা থেকে প্রকাশিত একটি অনলাইন পত্রিকা। # এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি রাইট বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Translate »