সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০৯:১৯ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
রূপসায় সংরক্ষিত আসনের ইউপি সদস্য চয়ানিকাকে আবারো চায় এলাকাবাসী “অসহায় মানুষদের আইনী সহায়তা নির্শ্চিত করতে হবে” রূপসায় শ্রীফলতলা ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী ইসহাক সরদারের গণসংযোগ ডুমুরিয়ায় জিকেবিএসপি’র কাজ পরিদর্শন নৈহাটী ইউপি’র ২নং ওয়ার্ডে এবারও ইলিয়াজকে মেম্বর হিসেবে দেখতে চাই ওয়ার্ডবাসী আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুরের নির্বাচনী জনসভা ১৯৭৫ এর পরে দেশের সফল রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা-এমপি সালাম মুর্শেদী শার্শায় নৌকার মনোনয়ন জেরে হামলা : ইউপি সদস্যসহ আহত ২০ খুলনায় রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির উদ্যোগে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত ফকিরহাটে ট্রাকের ধাক্কায় ইজিবাইক চালকসহস আহত ৫

জেলা পরিষদে ঠিকাদারের ওপর হামলা : খুলনা সদর থানায় মামলা 

  • আপডেট : শুক্রবার, ৮ অক্টোবর, ২০২১, ৮.৪৬ পিএম
জেলা পরিষদে ঠিকাদারের ওপর হামলা : খুলনা সদর থানায় মামলা 

নিজস্ব প্রতিবেদক : খুলনা জেলা পরিষদ ঠিকাদার কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক এমডি মফিজুর রহমানকে মারপিটের ঘটনায় খুলনা সদর থানায় মামলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৭ অক্টোবর) রাতে ভিকটিম নিজে বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেন। মামলা মূল আসামি সুজনকে পুলিশ এখনও পর্যন্ত গ্রেপ্তার করতে পারেনি। তবে অভিযান অব্যহত রয়েছে বলে খুলনা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) মোঃ হানিফ জানিয়েছেন।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ভিকটিম জেলা পরিষদের একজন প্রথম শ্রেণির ঠিকাদার ও খুলনা জেলা পরিষদ ঠিকাদার কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক। ৬ অক্টোবর সকাল সাড়ে নয় টার দিকে জেলা পরিষদের দ্বিতীয় তলায় একটি কাজের ব্যাপারে এ,ও সাহেবের কাছে যান তিনি। কাজ শেষে অফিসের ওই কর্মকর্তার রুম থেকে বের হওয়া মাত্র মামলার আসামি সুজনসহ অজ্ঞাত নামা আরও কয়েকজন তার ওপর আর্তকিত হামলা চালায়। সুজন চাপাতি দিয়ে হত্যার উদ্দেশে একটি কোঁপ দিলে তার মাথার ডান পাশের হাড় কেটে যায়। রক্ত দেখে পড়ে যান এবং পকেটে থাকা চার লাখ ৫০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয় সুজন। সুজনের সাথে থাকা অজ্ঞাতনামা সন্ত্রাসীদের আঘাতে ভিকটিমের ডান চোখ মারাত্মক জখম হয়। এ ঘটনার দু’দিন পরে তিনি সুজনের নাম উল্লেখসহ আরও অজ্ঞাতনামা চার থেকে পাঁচ জনের বিরুদ্ধে খুলনা থানা থানায় মামলা দায়ের করেন, যার নং ১০।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা টিপু সুলতান জানান, বৃহস্পতিবার রাতে এমডি মফিজ উদ্দিন বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। আসামিকে গ্রেপ্তারের উদ্দেশে শুক্রবার সারাদিন অভিযান চালানো হয়েছে। সুজনের বাড়িতে বউ ও ছেলে ছাড়া আর কোন পুরুষ মানুষ নেই। একটি টেন্ডারের বিষয়কে কেন্দ্র করে এ মারামারি সূত্রপাত বলে তিনি জানিয়েছেন। আসামি সুজনকে গ্রেপ্তার করতে পারলে ঘটনার সত্যতা জানা যাবে।

অপরদিকে, ভিকটিম এমডি মফিজ উদ্দিন শুক্রবার রাতে এ প্রতিবেদককে জানায়, খুব চালাক প্রকৃতির লোক সুজন। একজন সুবিধাবাদী লোক সে । বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদের রাজনীতির সাথে জড়িত সে। জেলা পরিষদের তালিকাভুক্ত ঠিকাদার নন সুজন। তবে বিভিন্ন এলাকার ঘাটগুলো ডাকে নেয় সুজন। আসামিরা গ্রেপ্তার না হওয়া পর্যন্ত আতঙ্কে রয়েছেন তিনি।

নিউজটি শেয়ার করুন

নিচে আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ThemesBazar-Jowfhowo
# নতুন সকাল ডটকম, রূপসা-খুলনা থেকে প্রকাশিত একটি অনলাইন পত্রিকা। # এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি রাইট বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।