রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯:০৫ পূর্বাহ্ন
জরুরী ঘোষণা :

নতুন সকাল ডটকম পড়ুন ও বিজ্ঞাপন দিন। নতুন সকাল ডটকম পড়ুন ও বিজ্ঞাপন দিন। নতুন সকাল ডটকম পড়ুন ও বিজ্ঞাপন দিন নতুন সকাল ডটকম পড়ুন ও বিজ্ঞাপন দিন *

সংবাদ শিরোনাম
বিএনপি গণতান্ত্রিক পন্থা না মানলে রাজনৈতিকভাবে প্রতিহত করা হবে-নারায়ন চন্দ্র চন্দ এমপি রূপসায় আওয়ামীলীগ নেতা বাবুর চাচার জানাজা সম্পন্ন তেরখাদা সদর ইউনিয়ন যুবলীগের কর্মী সভা প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরা সমাজের অবিচ্ছেদ্য অংশ-সিটি মেয়র ‍‍‌‌‌‌‍‌‌গঠনমূলক সাংবাদিকতা সকলক্ষেত্রে ইতিবাচক দিকনির্দেশনা দিতে পারে রূপসায় আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস পালিত সাংবাদিক নয়নের মায়ের মৃত্যুতে তেরখাদা প্রেস ক্লাবের শোক ডুমুরিয়ায় পুরাতন ট্রালার ঘাটে ওয়াজ মাহফিল অনুষ্ঠিত খুলনা জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে পূর্ব রূপসায় দুই বীর শহীদের মাজারে পুষ্পমাল্য অর্পণ বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমীন ও বীর বিক্রম মহিবুল্লাহ’র শাহাদৎ বার্ষিকী উপলক্ষে রূপসায় নানা আয়োজন

মোংলায় ৭শ মেঃ টন পাথর নিয়ে আবারও কার্গো ডুবি

  • আপডেট : বৃহস্পতিবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২২, ৭.৫১ পিএম
  • ২৭ জন পড়েছেন
মোংলায় ৭শ মেঃ টন পাথর নিয়ে আবারও কার্গো ডুবি

মোংলা প্রতিনিধি : মোংলা বন্দরের পশুর চ্যানেলে এখনও বন্ধ হয়নি ফিটনেসবিহীন মেয়াদোত্তীর্ণ নৌযান চলাচল। কিছুদিন হাঁকডাক দিয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা শোনা গেলেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি। এখনও মেয়াদোত্তীর্ণ সার্ভে সনদ নিয়ে পণ্য পরিবহন করছে কোন কোন নৌযান। এ অবস্থায় বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) দিবাগত রাত সোয়া ১২টার দিকে ৭শ মেঃ টন পাথর নিয়ে মোংলা বন্দরের হারবাড়িয়া এলাকায় ডুবে গেছে একটি কার্গো জাহাজ। ডুবে যাওয়া ‘এম ভি মাষ্টার দিদার’ নামে জাহাজটির সার্ভে সনদ মেয়াদোত্তীর্ণ ও ফিটনেসবিহীন ছিল বলে জানিয়েছেন বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার মাষ্টার ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ শাহীন মজিদ।
তিনি বলেন, পাথর নিয়ে ডুবে যাওয়া ‘মাষ্টার দিদার’ জাহাজের মালিক দেলোয়ার হোসেনকে ডাকা হয়েছে। দ্রুত এটি উত্তোলনের জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া মেয়াদোত্তীর্ণ সার্ভে সনদ নিয়ে কিভাবে পণ্য পরিবহন করছে তারও ব্যাখ্যা চাওয়া হবে। তবে হারবাড়িয়া এলাকায় পাথর নিয়ে জাহাজ ডুবলেও মোংলা বন্দরের মূল চ্যানেল নিরাপদ রয়েছে বলেও জানান তিনি।
এব্যাপারে লাইটার জাহাজ মাষ্টার দিদারের মালিক দেলোয়ার হোসেনকে একাধিকবার ফোন করে তার বক্তব্য জানতে চাইলেও সম্ভব হয়নি। তিনি ফোনটি বারবার কেটে দিয়েছেন।
খুলনা নৌপরিবহন অধিদপ্তরের পরিদর্শক মোঃ রাশেদুল আলম বলেন, ‘আমাদের কাজ রেজিষ্ট্রেশন দেওয়া। ফিটনেসবিহীন ও মেয়াদোত্তীর্ণ যেসব নৌযান নদীতে চলাচল করবে তা দেখার দায়িত্ব বন্দর কর্তৃপক্ষের, বিআইডব্লিউটিএ এবং নৌ পুলিশের। সবার দায়িত্বে অবহেলা ছিল। তিনি বলেন, পাথর নিয়ে যে জাহাজটি ডুবেছে, সেই ‘মাষ্টার দিদার ‘ নামে জাহজটির বিরুদ্ধে মেয়াদোত্তীর্ণ সার্ভে সনদ ও ফিটনেসবিহীন থাকায় গত মাসে মেরিন কোর্টে মামলা দিয়েছি। এখনও শুনানি হয়নি। এটি এখনও পণ্য পরিবহন করে পাথর নিয়ে ডুবছে। তদন্ত কমিটি গঠন করে এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান রাশেদুল আলম।
মোংলা বন্দরের ৬ নন্বর মুরিং বয়ায় অবস্থানরত একটি বিদেশি জাহাজ থেকে পাথর বোঝাই করে এম ভি মাষ্টার দিদার কার্গো জাহাজটি নওয়াপাড়ার উদ্দেশ্য ছেড়ে আসে। পথিমধ্যে পশুর নদীর হারবাড়িয়া এলাকায় অন্য একটি লাইটারেজ জাহাজের সাথে ধাক্কা লেগে তলাফেটে ডুবে যায় মাষ্টার দিদার জাহাজ। তবে এসময় ওই জাহাজে থাকা ১০ জন স্টাফ লাফ দিয়ে প্রাণে বেঁচে যায় বলে জানা গেছে। তবে তারা সকলেই সুস্থ্য ও নিরাপদে রয়েছে বলে জানায় জাহাজের মাস্টার।

নিউজটি শেয়ার করুন

নিচে আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

ThemesBazar-Jowfhowo
# নতুন সকাল ডটকম, খুলনা রূপসা থেকে প্রকাশিত একটি অনলাইন পত্রিকা। # এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া কপি রাইট বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।